মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

সিটিজেন চার্টার

(ক) প্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ

ক্রঃ নং

প্রশিক্ষন কোর্সের নাম

প্রশিক্ষনের মেয়াদ

কোর্স ফি

নুন্যতম শিক্ষাগত যোগ্যতা

সময়কল (প্রতি অর্থ বছর অনুযায়ী)

মন্তব্য

০১

০২

০৩

০৪

০৫

০৬

০৭

০১

মৎস চাষ

১মাস

৫০/=

৮ম শ্রেণী পাস

প্রতি মাসে ১টি করে ব্যাচ

১। ব্যাচ শুরুর (কলাম ৬ এর সময়কার অনুযায়ী )

পূর্ববর্তী মাসের প্রথম সপ্তাহে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি জারী করা হয় এবং শেষ সপ্তাহে ভর্তি পরীক্ষা গ্রহন কার হয়।

 

৩।ভর্তি বিজ্ঞপ্তি অনুসারে নিজ নিজ উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তাকে মাধ্যম করে সংশ্লিষ্ট জেলার ডিডি বরাবরে আবেদন লিখে উপজেলা/ জেলায় জমা দিতে পারবেন কিংবা জেলার ডিডি বরাবরে সরাসরি জেলা কর্যালয়ে জমা দিতে হবে ।

৩। আবেদনের সংগে দুই কপি পাসর্পোট ও এক কপি ষ্ট্যাম্প সাইজ ছবি ,সকল শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদের সত্যায়িত ফটোকপি নাগরিকত্ব সনদ গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক চারিত্রিক সনদ জমা দিতে হয়।

৪। ২নং ক্রমিকে বর্নিত প্রশক্ষিন কোর্সেটি আবাসিক বিধায় প্রতি মাসে মাথা পিছু ১২০০/= ভাতা দেয়া হয়।

০২

গবাদি পশু ও হাঁসমুরগী পালন, মৎস চাষ এবং কৃষি বিষয়ক প্রশিক্ষণ

৩মাস

১০০/=ও জমানত ২০০/=

,,

জুলাই-সেপ্টঃ, অক্টো-ডিসেঃ,

জানু-মার্চ, ও এপ্রিল-জুন

০৩

ব্লক প্রিন্টিং্র   

৩মাস

৫০/=

,,

,,

০৪

বাটিক পিÖ্রন্টাং

৩মাস

৫০/=

,,

,,

০৫

পোষাক তৈরী

৪মাস

৫০/=

,,

জুলাই-অক্টো্র্র্র্র্রঃ

নভেঃ ফেব্রুয়ারী

মার্চ - জুন

০৬

সাঁট মুদা্রক্ষরিক

৬মাস

৫০/=

এইচ, এস, সি,পাস

জুলা-ডিসেঃও জানুঃ-জুনঃ

০৭

কম্পিউটার ( বেসিক)

৬মাস

১০০০/=

,,

,,

০৮

কম্পিউটার ( গ্রাফিক্স)

৬মাস

২০০০/=

,,ওবেসিক কোর্স সম্পন্ন

,,

০৯

ইলেকট্রিক্যাল এন্ড হাউজ ওয়ারিং

৬মাস

৩০০/=

৮ম শ্রেণী পাস

,,

১১

ইলেকট্রিনিক্স মোবাইল (মোবাইল সার্ভিসিং সহ)

৬মাস

৩০০/=

এইস,এস, সি,পাস

,,

১১

রেফ্রিজারেশনএন্ড এয়ার কন্ডিশন

৬মাস

৩০০/=

এইস,এস, সি,পাস

,,

১২

উল নেটিং

৬মাস

৫০/=

৮ম শ্রেণী পাস

,,

১৩

দপ্তর বিজ্ঞান

১বছর

৫০/=

এইস,এস, সি,পাস

প্রতি বছরে ১টি করে ব্যাচ

খ) অ- প্রাতিষ্ঠানিক/ ভ্রাম্যমান প্রশিক্ষণঃ

ক্রঃ নং

 

প্রশিক্ষণ কোর্সের নাম

প্রশিক্ষণের মেয়াদ

কোর্স

ফি

নুণ্যতম শিক্ষাগত যোগ্যতা

মন্তব্য

০১

হাঁস-মুরগী পালন ও খামার স্থাপন

১৫দিন

..

৫ ম শ্রেণী পাস

 

1.       বছর যে কোন সময় যে কোন স্থানে একই ট্রেডে কমপক্ষে ৩০ টি আবেদন পাওয়া গেলে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা কারা হয় তবে আবেদনের সংখ্যা একই ট্রেডে ৪০ এর অধিক হলে ভর্তি পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়।

2.      নিজ নিজ উপজেলার ওয়াই, ডি ও বরাবরে আবেদন করে সংশিষ্ট উপজেলা কার্যালয়ে জমা দিতে হবে ।

3.     আবেদনের সংগে দুই কপি পাসপোর্ট ও এক কপি ষ্ট্যাম্প সাইজ ছবি সকল শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদের সত্যায়িত ফটোকফি, সিটিমেয়র/ পৌর/ ইউ, পি চেয়ারম্যান কর্তৃক নাগরিকত্ব সনদ গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক  চারিত্রিক সনদ পত্র জমা দিতে হয়।

4.       অ- প্রাতিষ্ঠানিক ভ্রাম্যমান প্রশিক্ষন কোর্স সমূহ অনাবাসিক।

০২

ছাগল পালন

৭ দিন

..

০৩

গবাদি পশু  মোটাতাজা করণ

৭ দিন

..

০৪

গাভী পালন

৭ দিন

..

০৫

 আধুনিক পদ্বতিতে মৎস চাষ

৭ দিন

..

০৬

সমম্বিত মৎস চাষ

৭ দিন

...

০৭

গলদা ও বাগদা চিংড়ি চাষ প্রকল্প

৭ দিন

..

০৮

বনায়ন ও নার্সিরী

৭ দিন

..

০৯

 মৌমাছি পালন

৭ দিন

..

১০

বাঁশ ও বেতের কাজ

১৫দিন

..

১১

পাটজাত পণ্য প্রস্তাতকরণ

১০ দিন

..

১২

আচার জাম , জেলী , প্রস্ততকরণ

১৫দিন

..

১৩

নকশী কাঁথা তৈরী

১০ দিন

..

১৪

 পোষাক তৈরী

৩০ দিন

..

১৫

 ব্লক প্রিনিঢং

১০ দিন

..

১৬

বাটিক  প্রিন্টিং

১০ দিন

..

১৭

স্ক্রীন প্রিন্টিং

১৫দিন

..

১৮

রিক্সা/সাইকেল/ ভ্যান মেরামত

১৫দিন

..

১৯

ওয়েল্ডিং

২৮দিন

..

২০

কাপড়/ চামড়া ব্যাগ তৈরী

১৫দিন

..

২১

তাuঁতর কাজ

২৮দিন

..

২২

ইলেকট্রি্ক হাউজ ওয়ারিং

৩০ দিন

..

২৩

রেডিও /টিভি / ভিসিআর/ভিসিপি/ ভিসিডি মেরামত

৩০ দিন

..

২৪

মৃৎ শিল্পের কাজ

১৫দিন

..

২৫

কাঠের কাজ/লোহর কাজ/ রাজ মিস্ত্রীর কাজ

১৫দিন

..

২৬

স্থানীয় চাহিদা ভিত্তিক যে কোন ট্রেড

৭-৩০ দিন

..

 

আত্বকর্মসংস্থানে ঋন সহায়তা কার্যক্রমঃ

ক) যুব ঋনঃ

১.       যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর হতে যে কোন বিষয়ে প্রশিক্ষন সমাপ্তি করতঃ প্রকল্পের প্রাথমিক কাজশুুর পর ঋণের

জন্য নিজ নিজ উপজেলার সহকারী পরিচালক/ উপজেলা যুব উন্নয়ন উধিদপ্তরবরাবর কাগজ আবেদন করতে হবে।

২.       কর্মকর্তা/ কর্মচারী কর্তৃক পরিদর্শনের পর নির্বাচিত ফরম সররাহ করা হবে।

৩.      প্রস্তাবিত প্রকল্প ছকসহ ফরম সঠিক ভাবে পূরন করে নিমোক্ত কাগজপত্র সহ উপজেলা কার্যালয়ে জমা করতে হবে।

       * আবেদনকারীর ৩ কপি ছবি।

       * নাগরিকত্ব সনদপত্র।

       * প্রশিক্ষন সনদ পত্র।

       * ১৫০/ টাকার Stamp এ পিতা/ মাতা/ ভাই/ আত্বীয় স্বজন/ অন্য যে কোন তৃতীয় ব্যক্তির নিশ্চয়তা পত্র ।

       * নিশ্চয়তা প্রদানকারীর যে কোন জমির দলিলের মূল কপি ও খাজনা পরচার মূল কপি ( প্রস্তাবিত ঋণের অধিক মূল্যের)।

       * নিশ্চয়তা প্রদান প্রদানকারীর ৩ কপি ছবি ।

       * প্রকল্প স্থাপনের জমির মালিকানার স্বপক্ষে প্রমানপত্র।

       * অন্যন্ন  আর্থিক প্রতিষ্ঠানের অনাপত্তির সনদপত্র।

৪.       পূর্ন কাগজপত্র সহ ৩ সেট আবেদনপত্র জমা দিতে হবে।

৫.       ঋনের সর্বনিম্ন ও সর্বোচ্চ পরিমান ১০০০০/৫০০০০/-।

৬.      প্রেস পিরিয়ড ৩ মাস অর্থাৎ ৪ মাস হতে কিস্তি শুরু হয় এবং কিস্তি সংখ্যা ২৪।

৭.       একজনকে পর পর দুইবার ঋন দেওয়া হয়।

৮.       ১০% ক্রমহ্রাসমান পদ্ধতিতে সরল হিসাবে সার্ভি  চার্জ য়ো হয় । কোন দন্ড সদি নেই।

সচেতনতা সৃষ্টি ও উদ্বুদ্ধকরণ কার্যক্রমঃ

§        দৃষ্টি ভঙ্গির পরিবর্তন ।

§        স্বেচ্ছাশ্রমের মনোভাব তৈরী ।

§        সকলকে স্বাক্ষর ও অক্ষর জ্ঞানদান এবং উপযুক্ত বয়সে স্কুলে প্রেরন নিশ্চত করন।

§        স্বাস্থ সম্মত পায়খানা ব্যবহার ।

§        শিশুদের সাবান ও স্যাবলন ব্যবহার ।

§        আর্সেনিক মুক্ত পানি পান।

§        পরিকল্পিত পরিবার গঠন/ জন বিষ্ফোরন রোধ।

§        বৃক্ষ রোপন তথা সামমাজিক বনায়ন।

§        STD/ HIV AIDS প্রতিরোধ সচেতনতা সৃষ্টি ।

§        মাদকের অপব্যবহার রোধ ও নেশা মুক্ত সমাজ গঠন ।

§        সকল প্রতিষেধক টিকা গ্রহন।

§        প্রজনন স্বাস্থ্য শিক্ষা ।

§        জেন্ডার বৈষম্য দূরীকরন ও নারীর ক্ষমতায়ন।

§        পারিবারিক বন্ধন মজবুতকরন এবং পিতা মাতা / বয়োজষ্ঠদের সম্মান প্রদর্শন।

§        পারিবারিক শিক্ষা ধরে রাখা।

§        প্রয়োজনীয় ও প্রাথমিক আইন সচেতনতা সৃষ্টি।

§        বন্যপশু-পাখি সংরক্ষন তথা অতিথি পাখি নিধন বন্ধ করা।

§        পোনা/ ঝটকামাছ নিধন তথা কারেন্ট জাল ব্যবহার বন্ধ করা ।

§        জৈব্য সার প্রস্ত্তত ও ব্যবাহারে উদ্যোগী হওয়া ।

§        সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া কর্মকান্ডে অংশ গ্রহন করা।

§        উন্নয়নের সমম্বিত চিন্তা ভাবনা।

§        স্থানীয় সম্পদের ব্যবহার নিশ্চত করন।

§        বিভিন্ন সরকারী /বেসরকারী র‌্যালী , আলোচনা সভা, উঠান বৈঠক সহ অন্যন্য মাধ্যমে অংশ গ্রহন করা।

§        জন্ম নিবন্ধন করন।

§        মানবিক ও ধর্মীয় মূল্যবোধ অক্ষুন্ন বাখা।

§        নারী নির্যাতন যৌতুক প্রথা বাল্য বিবাহ/ বহু বিবাহ প্রতিরোধ।

§        বিয়ে রেজিষ্ট্রি নিশ্চিত করা।

§        সরকারী উদ্যোগে সহায়তা করা।

§        নাগরিক দায়িত্ব কর্তব্য এবং অধিকার/ মানবাধিকার সম্পর্কে ধারণা দেয়া।

§        সামগ্রীক পরিবেশ সচেতনতা সৃষ্টি।

§        সামাজিক ব্যাধি ও সামাজিক উন্নয়নে সচেতনতা সৃষ্টি।

সংগঠন তালিকাভূক্তি কার্যক্রমঃ

১.       আগ্রহী স্বেচ্ছাসেবী যুব/ যুব মহিলা সংগছন নিজস্ব জেলা/ উপজেলা উপ-পরিচালক/সহকারী পরিচালক/

     উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা বরাবর তালিকাভূক্তির আবেদন করে ফরম সংগ্রহ করবেন।

২.       ফরম যথাযথভাবে পূরন পূর্বক নিম্নোক্ত কাগজপত্রাদিসহ স্ব-স্ব উপজেলা কার্যালয়ের সহকারী / পরিচালক/  উপজেল যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা বরাবর জমা করবেন।

ক) গঠনতন্ত্র অনুমোদনকারী সভার রেজুলেশন এর অনুলিপি ৩ কপি (মোট সদস্য সংখ্যা উল্যেখ করতঃ কতজন সদস্য/সদস্যা দাবারা গঠনতন্ত্র অনুমোদিত হইয়াছে রেজুলেশনে  তাহার সুস্পষ্প উল্লেখ থাকিতে হইবে । উল্লেখ যে, মোট সদস্য সংখ্যার   বা  অংশ দ্বারা অবশ্যই গঠনতন্ত্র অনুমোদিত হইতে হইবে)।

খ) নাম পেশা স্বক্ষর ও ঠিকানা সাধারন সদস্য/সদস্যাদের নামের তালিকা্এবং কার্যকরী পরিষদ  সদস্যদের নামের তালিকা ৩ (তিন কপি)।

গ) প্রতিষ্ঠানের সদস্য/সদস্যাদের অতীত সমাজ সেবামূলক কাজের বিবরণ ( যদি থাকে) ৩ (কপি) ।

ঘ) প্রতিষ্ঠানে জায়গা ও অফিস সংক্রান্ত দলিল পত্রাদি ৩ (তিন) কপি।

ঙ) গঠনতন্ত্র ৩ (তিন) কপি।

গঠনন্ত্রের অন্তরভূক্ত বিষয়সমুহঃ

1)      সংগঠনের পুরা নাম ও ঠিকানা, কার্য এলাকা, লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য।

2)     নিম্নতম সদস্য/সদস্যার সংখ্যা, চাঁদর হার, পদের যোগ্যতা ও অযোগ্যতা, এর শ্রণী বিভাগ এবং সদস্য পদ বাতিলের ও পুনুরুদ্ধারের বিধি।

3)     বিভিন্ন প্রকারের কমিটি/ পরিষদের প্রকারভেদ, গঠন প্রনালী ও কার্য সংক্রান্ত বিধি ও মেয়াদ, কমিটি/পরিষদের কর্মকর্তাদের ক্ষমতা ও কার্যাবলী।

4)      সভার শ্রেণী বিভাগ, সভা আহবান ও নোটিশের মেয়াদ এবং কোরাম, তলবী সভার        বিস্তারিত বিবরন ও অনাস্থা প্রস্তাব।

5)      নির্বাচনী কমিশন গঠন ও র্নিাচন পরিচালনা।

6)     আয়ের উৎস ও অর্থ খরচের বিধি, ব্যাংকের হিসাব পরিচালনা ও হিসাব পরিক্ষার বিবরন।

7)      গঠনতন্ত্রের পরিবর্তন , পরিবর্ধন ও সংশোধন সংক্রান্ত বিবরন থাকিতে হইবে।

8)     সংগঠনের বিলুপ্তি সংক্রান্ত বিধি।

9)      সরকারী/ আধাসরকারী ও স্বায়ত্বশাসিত সংস্থার এবং জাতীয় ভিত্তিক সংগঠনসমূহের সহিদ শাখাগুলির প্রশাসনীক ও অর্থনৈতিক যোগসূত্র।

চ) সংগঠনের সাধরণ ও কর্যকরী পরিষদের অনুমোদনকারী সভার সিদ্ধান্তের অনুলিপি ৩ (তিন) কপি।

ছ) সংগঠনের বর্তমান ও ভবিষ্যৎ কর্মসূচি ৩ (তিন) কপি।

৩.যাবতীয় সংযোজনী টাইপকৃত আকারে এবং প্রথম শ্রেণীর গেজেটেড কর্মকর্তার দ্বারা সত্যায়িত হইতে হইবে।

৪.উপজেলার সহকারী পরিচালক/উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা কর্তৃক পরিদর্শণের পর যোগ্য সংগঠনের কাগজ

         পত্র জেলার উপ-পরিচালক/ সহকারী পরিচালক বরাবরে প্রেনণকরবেন।

৫.অতঃপর জেলা থেকে আবেদনের কাগজ পত্র যাচাই বাছাই অন্তে তালিকাভূক্তির পত্র ও সনদ পত্র দেয়া হয়।

 

বেসরকারী যুব সংগঠন সমূহে প্রকল্প ভিত্তিক অনুদান কার্যক্রমঃ

১) যুব কল্যান তহবিলের অনুদানঃ

§        প্রতি বৎসর সেপ্টেম্বর-অক্টোবর অথবা অন্য কোন মাসে জাতীয় দৈনিক প্রত্রিকা সমূহে প্রচারিত বিজ্ঞপ্তি মোতাবেক যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয় কর্তৃক যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের জেলা কার্যালয়ে সরবরাহকৃত ফরমে আবেদন করতে হয়।

§        যে কোন সরকারী প্রতিষ্ঠানের নিবন্ধনকৃত বেসরকারী যুব সংগঠন সমূহ নিজ নিজ প্যাডে উপ-পরিচালক/সহকারী পরিচালাক বরাবরে আবেদনে করে ফরম সংগ্রহ করতে পারেন।

§        ফরম এ নির্দেশিত কাগজপত্র সমূহ নির্ভুলভাবে ফরমপূরণ করতঃ প্রকল্প প্রস্তাব ( সর্বোচ্চ ২৫০০০/-হাজার টাকার) সহ উপজেলা কার্যলয়ের সহকারী পরিচালক / উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা কর্তৃক সুপারিশ প্রদানের  পর জেলার উপ-পরিচালক/সহকারী পরিচালক সুপারিশ করবেন। অতপরঃ সংশ্লেষ্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সুপারিশ গ্রহন পূর্বক সংগঠন সমূহ নিজ উদ্দ্যেগে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের নির্ধারিত ঠিকানায় মূল কপি প্রেরন করবেন এবং ১ কপি (ফটোকপি) জেলা কার্যালয়ে জমা করবেন।

§        যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয় কর্তৃক চুড়ান্ত মনোনয়নের পর জেলা কার্যালয়ের মাধ্যমে বৎসরের নির্ধারিত সময়ে ও তারিখে মন্ত্রনালয়ের অনুষ্ঠান থেকে চেক গ্রহন করতে হয়। অনুদানের চেক গ্রহণকারীকে ঢাকায় যাতায়াত খরচ মন্ত্রনালয় কর্তৃক দেয়া হবে।

২) অনুন্নয়ন খাতের অনুদানঃ

§        প্রতি বৎসর জানুয়ারী-ফেব্রুয়ারী অথবা পরবর্তী মাসে প্রধান কার্যালয় কর্তৃক জেলা কার্যালয়ে ফরম সরবরাহ করা হয়। ফরম প্রাপ্তির পর জেলা কার্যালয় কর্তৃক জারীকৃত বিজ্ঞপ্তি/ পত্র মোতাবেক নিজস্ব প্যাডে        উপ-পরিচালক /সহকারী পরিচালক বরাবর আবেদন করে ফরম গ্রহন করত হয় অথবা উপজেলা কার্যালয়ের মাধ্যমে ফরম পাওয়া যেতে পারে।

§        প্রয়োজনীয় সকল কাগজ পত্রসহ পূরনকৃত ফরম জেলা/উপজেলা কার্যালয়ে জমার পর জেলা প্রশাসকের সভাপতিত্বে গঠিত কমিটির সুপারিশ সহকারে প্রধান কার্যালয়ে পাঠাতে হবে । যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর কর্তৃক চূড়ান্ত অনুমোদনের পর জেলা কার্যালয় হতে অনুদানের চেক সংগ্রহ করতে হয়।

৩) C. Y. P অনুদানঃ

§        সাধরণত প্রতি বৎসর সেপ্টেম্বর/অক্টোবর মাসের দিকে আনুদানের ফরম জেলা কার্যলয় হতে সংগ্রহ করতে হয় ।

§        ফরম সংগ্রহের পর পূরণ করে উপ-পরিচালক/ সহকারী পরিচালকের সুপারিশ সহকারে জেলা কার্যালয়ের মাধ্যমে প্রধান কার্যালয়ে পাঠাতে হয়।

§        প্রধান কার্যালয় ফরমগুলি যাচাই-বাচাই করে কমনওয়েলথে প্রেরন করে।

§        কমনওয়েলথ থেকে চূড়ান্ত মনোনয়নের পর প্রধান কার্যালয়ের মাধ্যমে জেলা কার্যালয়ে আসে।

§        মনোনয়ন প্রাপ্ত যুব সংগঠনকে কমনওয়েলথভূক্ত দেশ থেকে এ অনুদান সংগ্রহ করতে হয়।

        

আত্নকর্মসংস্থানে সফলতার স্বীকৃতি স্বরূপ যুবপুরস্কার কার্যক্রমঃ

১। জাতীয় পুরস্কারঃ

  ** প্রতি বৎসর জাতীয় যুব দিবসের অনুষ্ঠানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রতি বিভাগের ১

       জন সফল আত্নকর্মী ১ জন যুবক এবং ১ জন যুব মহিলাকে জাতীয় পুরস্কার

       হিসেবে মেডেল, সনদ পত্র ও ২০,০০০/=/৫০,০০০/=টাকার চেক প্রদান করে থাকেন।

  ** প্রতি জেলা থেকে জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে গঠিত কমিটি কর্তৃক প্রাথমিক

       বাছাই করে প্রধান কার্যালয়ে ২টি মনোয়ন (১ জন যুবক এবং ১ জন যুব

       মহিলা)পাঠানো হয়।

 ** প্রধান কার্যালয় সকল জেলা থেকে প্রাপ্ত মনোনয়ন  বাছাই পুর্বক মন্ত্রনালয়ের

      অনুমোদনক্রমে চুরান্ত নির্বাচন করে থাকেন।

২। জেলা পর্যায়ের পুরস্কারঃ

 ** প্রতি বৎসর জাতীয় যুব দিবস উপলক্ষে যুব দিবস উদ্যাপন কমিটির সিদ্ধান্ত

     মোতাবেক কয়েকজন যুবক/যুব মহিলাকে আত্নকর্মসংস্থানে সফলতার জন্য

      নির্ধারিত কমিটির মাধ্যমে বাছাই পূর্বক সনদপত্র ও সামান্য উপহার হিসেবে

      প্রদান করা হয়।

৩। উপজেলা পর্যায়ের পুরস্কারঃ

 ** প্রতি বৎসর প্রতি উপজেলার ১ জন সফল আত্নকর্মী যুবক/ যুব মহিলাকে

     পুরস্কার উপজেলা ও জেলার নির্ধারিত কমিটির মাধ্যমে বাছাই করতঃ প্রধান

     কার্যালয়ের চুড়ান্ত মনোয়নের পর ১০০০/= টাকার প্রাইজ বন্ড ও সনদপত্র

     উপহার হিসেবে প্রদান করা হয়।

৪। আন্তর্জাতিক পুরস্কারঃ

 ** প্রতি বৎসর জেলা থেকে প্রেরিত প্রস্তাব ও মন্ত্রনালয় কর্তৃক চুরান্ত বাছাইকৃত

     বাংলাদেশের ২/১ জন সফল আত্নকর্মীকে/যুব সংগঠককে (CYP)(কমনওয়েলথ

     ইয়ুথ প্রোগ্রাম) কর্তৃক মডেল,সনদপত্র ও নিদৃষ্ট পরিমানঅর্থের চেক পূরস্কার

     হিসেবে প্রদান করে থাকেন।

 ** পুরস্কার(CYP)কর্তৃক মনোনিত দেশ থেকে তাঁদের(CYP)খরচে গ্রহন

     করতে হয়।

 

 

যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর ও বেসরকারী স্বেচ্ছাসেবী যুব সংগঠনের  মধে কর্মসূচী ভিত্তিক নেটওয়ার্কিং জোরদারকরণ প্রকল্প

 

ক্লাব ভিত্তিক যুব কর্মসূচী সারাদেশে সম্প্রসারণ ও জোরদর করণের মাধ্যমে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর ও বেসরকারী স্বেচ্ছাসেবী যুব সংগঠনের মাধ্যে কর্মসূচী ভিত্তিক নেটওয়ার্কিং জোরদার করা এ প্রকল্পের মূল লক্ষ। এ প্রকল্পের মাধ্যমে বেকার যুবদের লাভজনক কর্মসংস্থান বা আত্নকর্মসংস্থানের জন্য যুব সংগঠনের সহায়তায় স্থানীয় চাহিদাভিত্তিক জীবন দক্ষতা ও দক্ষতাবৃদ্বিমূলক প্রশিক্ষন প্রদান করা হবে। যুব কার্যক্রম বিষয়ক তথ্য সহজে প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সকল প্রশিক্ষিত ও আত্নকর্মী যবদের যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারী এবং যুব ঋণ কর্মসুচির ডাটাবেজড তৈরী করা হবে। এ লক্ষে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের প্রধান কর্যালয়ের সাথে সকল জেলা ও উপজেলায় ইন্টারনেট সংযোগ স্থাপন করা হবে। প্রকল্পটি জাপান সরকারের জিডিসি এফ- এর আর্থিক সহায়তায় পরিচালিত । বরুড়া, উপজেলায় ০২টি ক্লাব উল্লেখিত কর্মসুচী গুলি বাস্তাবায়ন করে আসছে । ০১ অবলম্বন ক্লাব ,পোঃ আমড়াতলী বাজার ,বরুড়া. কুমিল্লা। ০২ ঝলম ইউনাইটেড ক্লাব , ঝলম বাজার , বরুড়া, কুমিল্লা। ইতি পুর্বে সংগঠন ০২টি অত্র উপজেলার বেকার যুবদের কে সচেতনতা বৃদ্বিমূলক বিষয়ক ৭২০ জনকে প্রশিক্ষণ দিয়েছেন।


Share with :

Facebook Twitter